• Platforms for Dialogue

নিউজলেটার ভলিউম ২, মে -জুলাই ২০১৯

Updated: Dec 24, 2020


পরিবর্তনের জন্য সংলাপ

পিডিএফ ডাউনলোড করুন↓

সামাজিক কর্ম পদক্ষেপের সময়

প্লাটফর্মসফর ডায়ালগ প্রকল্পের মাল্টি-এ্যাক্টর পার্টনারগণ দীর্ঘ কয়েক মাসের প্রস্তুতি ও পরিকল্পনার পর এখন তাদের সামাজিক কর্মপ্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নে ব্যস্ত। মাল্টি-এ্যাক্টর পার্টনার সদস্যগণ যারা বছরের শুরু থেকে একত্রে কাজ করে আসছে,তাদেরকে প্রাথমিক পর্যায়ে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ, নেতৃত্ব, যোগাযোগ উপকরণ, সামাজিক কর্মপ্রকল্প, এবং সামাজিক জবাবদিহিতাউপকরণ যেমন; তথ্য অধিকার আইন,অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা, এবং জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল এবং নাগরিক সনদবিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

সে সময় থেকে, তারা তাদের কমিউনিটিকে প্রভাবিত করে এমন সামাজিক সমস্যাগুলির বিশ্লেষণ ও চিহ্নিত করে। সিএসও পার্টনার এবং পিফরডি প্রকল্পেরসহায়তায় কাঠামোবদ্ধ সামাজিক কর্ম প্রকল্পসমূহের মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট সমস্যাবলী সমাধানের জন্য এসকল ম্যাপসসমূহ নির্ধারণ করা হয়। ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন ও মন্ত্রি পরিষদেরঅংশীদারিত্বে পরিচালিত তিন বছর মেয়াদীপিফরডি প্রকল্প হতে প্রাপ্ত প্রাথমিক অনুদানের মাধ্যমে এই কমিউনিটি সমূহ স্থানীয় সরকার ও সরকারী কর্মকর্তাদের সহায়তায় কমিউনিটির অংশগ্রহণের মাধ্যমে সামাজিক সমস্যাদি সমাধানে তাদের কমিউনিটিকে সক্ষম করে তুলছে। স্যাপ-এর বাস্তবায়ন পর্যায়ে,সরকারী জবাবদিহি বাড়াতে এবং সরকারী সেবাসম্পর্কে স্থানীয় জনগণকে শিক্ষিত করে তুলতে স্থানীয় সরকারী কর্মকর্তা, বিভিন্ন সেবা প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ, সংশ্লিষ্ট নাগরিকগণকে নিয়ে পিফরডি প্রকল্পের ম্যাপসসমূহ একটি মৈত্রী গঠনকরে।

এই প্রচেস্টাসমূহ ইতোমধ্যে বিভিন্ন কমিউনিটিতে সুফল বয়ে এনেছে:

  • গাইবান্ধা জেলার খোলাহাতি ইউনিয়নে নিজস্ব নাগরিক সনদ তৈরীর মাধ্যমেকিভাবে সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমে দূর্নীতি হ্রাস করা যায় সে বিষয়ে আলোচনার জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যানের সাথে নাগরিকগণ সভা করছে। পল্লীসমাজ নারী উন্নয়ন সংস্থা-একটি স্থানীয় সিএসও।

  • বিশেষ করে নারী ও বৃদ্ধদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে নাগরিক অধিকারসমূহে প্রবেশগম্যতা উন্নয়নে সফলকাম হয়েছে।

  • সিলেটের  বদাঘাটে,কর সংগ্রহে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য ম্যাপসসমূহ স্থানীয় জনগণের সাথে সভা করেছে,যা অল্পসংখ্যক বাসিন্দা বুঝতে পেরেছেন। স্যাপ কার্যক্রমের মাধ্যমে, প্রক্রিয়াটি ব্যাখ্যায় এবং তাদের নাগরিক দায়িত্ব পালন কিভাবে কমিউনিটিতেইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে তা বোঝানোর জন্য স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিগণ এগিয়ে এসেছেন।

  • পটুয়াখালীর মাদার ভূঁইয়া ইউনিয়নে, বিদ্যালয়গুলোতে বিশেষ করে মেয়েদেরকে বাল্যবিবাহের অসুবিধা বা কুফল সম্পর্কে সতর্ক করার জন্য স্থানীয় ম্যাপ পৌঁছে যাচ্ছে। ম্যাপ বিশ্বাস করে যে অল্প বয়সে বিয়ের চেয়ে শিক্ষাকে বেছে নেওয়ার বিষয়ে কথা বলার জন্য বিদ্যালয় হচ্ছে সর্বোত্তম ও নিরাপদ স্থান।

  • মাগুরা ও শুনদালি ইউনিয়নে, বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সাথে স্যাপ সভাকরছে এবং তাদের সাথে স্কুল থেকে ঝরে পরার সংখ্যা হ্রাসে করনীয়সমূহ আলোচনা করছে। সিএসও পার্টনার ও ম্যাপসমূহের মাধ্যমে প্লাটফর্মস ফর ডায়ালগ প্রকল্পআগের চেয়ে অধিক সংখ্যরজনগোষ্ঠির কাছে পৌঁছুতে পারছে। পিফরডি প্রকল্পের লক্ষ্য হচ্ছে স্থানীয় প্রেক্ষাপটে জনগোষ্ঠির বাস্তব সমস্যা নির্ণয়ে প্রয়োজনীয় জ্ঞান প্রদানের মাধ্যমে নাগরিকগণকে প্রস্তুত করা যাতে তারাএর সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমেঅবশেষে সামাজিক জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠায় সফলকাম হয়।

কার্যকরী কমিউনিটি সম্পৃক্ততা বিষয়ে কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার স্বেচ্ছাসেবকগণকে প্রশিক্ষিণ প্রদান


এ বছরের জানুয়ারিতে ২১টি কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার চালু হবার পর প্লাটফর্মস ফর ডায়ালগ প্রকল্পটিঢাকায় অবস্থিত জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট -এ দুই দিনের প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য প্রতিটি সিআরসিথেকে স্বেচ্ছাসেবকদের আমন্ত্রন করে। এপ্রিলের ১২ ও ১৩ তারিখে কমিউনিটিকে সক্ষম করার জন্য এবং কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারের মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে তাদের দায়িত্ব-কর্তব্য সম্পর্কে প্রশিক্ষণ গ্রহণের লক্ষ্যে পিফরডি কীভাবে কাজ করছে তা শেখানোর জন্য ৪২ জন স্বেচ্ছাসেবককে আমন্ত্রন জানানো হয়।

এই প্রশিক্ষণটি কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারসমূহ কার্যকরভাবে চালাতে ও পরিচালনা করতে স্বেচ্ছাসেবকদেরকে প্রয়োজনীয় উপকরণাদি প্রদানের লক্ষ্যে পরিচালনা করা হয়েছিল। কিভাবে সিআরসি দর্শনার্থীদের প্রতি মনোযোগী হওয়া যায় এবং সামাজিক জবাবদিহি উপকরণ ও পিফরডি সম্পদগুলোর মাধ্যমে দর্শনার্থীদেরকে সহায়তা করা যায় সে বিষয়গুলোসহ মৌলিক আচরণবিধিসমূহ স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ শিখেছে। প্রশাসনিক দায়িত্ব ও রেকর্ড রক্ষণাবেক্ষণসহ কার্যকরী উত্তম অনুশীলনসমূহের উপরও তাদেরকে প্রশিক্ষিত করা হয়।

পঞ্চগড় জেলার সিআরসি স্বেচ্ছাসেবক ইয়াসমীন আক্তার  বলেন,

“এটা আমাদের জন্য খুবই কার্যকরী যে, প্রকল্প, এরসম্পদ এবং তথ্য পেতে দর্শনার্থীদেরকে কীভাবে যথাযথভাবে দিক নির্দেশনা দেওয়া যায় সে বিষয়ে এখন আমাদের সম্পূর্ণ ধারণা হয়েছে।”

স্বেচ্ছাসেবকদের বেশিরভাগই হচ্ছেন শিক্ষার্থী, এবং তাদের ৫০% এর বেশিই হচ্ছেন নারী। পিফরডি কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারের সাথে তাদের সম্পৃক্ততা স্থানীয় মালিকানার প্রতি জোড় প্রদান করে এবং পিফরডি’র প্রত্যাশা – সিআরসি হবে স্থানীয়দের দ্বারা স্থানীয়দের জন্য একটি জায়গা,তা প্রদর্শন করে। 

পিফরডি প্রকল্প পরিচালক জেস ম্যাগসান বলেন,এ বছরের জানুয়ারিতে ২১টি কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার চালু হবার পর প্লাটফর্মস ফর ডায়ালগ প্রকল্পটিঢাকায় অবস্থিত জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট -এ দুই দিনের প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য প্রতিটি সিআরসিথেকে স্বেচ্ছাসেবকদের আমন্ত্রন করে। এপ্রিলের ১২ ও ১৩ তারিখে কমিউনিটিকে সক্ষম করার জন্য এবং কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারের মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে তাদের দায়িত্ব-কর্তব্য সম্পর্কে প্রশিক্ষণ গ্রহণের লক্ষ্যে পিফরডি কীভাবে কাজ করছে তা শেখানোর জন্য ৪২ জন স্বেচ্ছাসেবককে আমন্ত্রন জানানো হয়।

এই প্রশিক্ষণটি কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারসমূহ কার্যকরভাবে চালাতে ও পরিচালনা করতে স্বেচ্ছাসেবকদেরকে প্রয়োজনীয় উপকরণাদি প্রদানের লক্ষ্যে পরিচালনা করা হয়েছিল। কিভাবে সিআরসি দর্শনার্থীদের প্রতি মনোযোগী হওয়া যায় এবং সামাজিক জবাবদিহি উপকরণ ও পিফরডি সম্পদগুলোর মাধ্যমে দর্শনার্থীদেরকে সহায়তা করা যায় সে বিষয়গুলোসহ মৌলিক আচরণবিধিসমূহ স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ শিখেছে। প্রশাসনিক দায়িত্ব ও রেকর্ড রক্ষণাবেক্ষণসহ কার্যকরী উত্তম অনুশীলনসমূহের উপরও তাদেরকে প্রশিক্ষিত করা হয়।

পঞ্চগড় জেলার সিআরসি স্বেচ্ছাসেবক ইয়াসমীন আক্তার  বলেন,

“এটা আমাদের জন্য খুবই কার্যকরী যে, প্রকল্প, এরসম্পদ এবং তথ্য পেতে দর্শনার্থীদেরকে কীভাবে যথাযথভাবে দিক নির্দেশনা দেওয়া যায় সে বিষয়ে এখন আমাদের সম্পূর্ণ ধারণা হয়েছে।”

স্বেচ্ছাসেবকদের বেশিরভাগই হচ্ছেন শিক্ষার্থী, এবং তাদের ৫০% এর বেশিই হচ্ছেন নারী। পিফরডি কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারের সাথে তাদের সম্পৃক্ততা স্থানীয় মালিকানার প্রতি জোড় প্রদান করে এবং পিফরডি’র প্রত্যাশা – সিআরসি হবে স্থানীয়দের দ্বারা স্থানীয়দের জন্য একটি জায়গা,তা প্রদর্শন করে। 

পিফরডি প্রকল্প পরিচালক জেস ম্যাগসান বলেন,

“স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে, আমাদের কর্ম এলাকায় আপনারা খুব সামনে থেকে কাজ করছেন।সে অর্থে, আপনারা অন্যদের কাছে পিফরডির মূখপাত্র।এটা  জোরদিয়ে বলার অপেক্ষা রাখেনা যে, এই প্রকল্পেরজন্য আপনারা কতটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাপালন করছেন এবং কমিউনিটির জন্য কতটা মহৎ সেবা প্রদান করছেন।”


পিফরডি প্রকল্প কর্তৃক স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিবৃন্দের জন্য প্রশিক্ষণ শুরু

বাংলাদেশে স্থানীয় সরকারের ক্ষুদ্রতম ইউনিট, ইউনিয়ন পরিষদ সরকারী সেবা সম্পর্কিত যে-কোন সমস্যা মোকাবেলায় নাগরিকদের যোগাযোগের সর্বপ্রথম স্থান। গুটিকতক সিভিল সার্ভিস কর্মকর্তাদের মত নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যগণ সামাজিক জবাবদিহি উপকরণ বিষয়ে প্রশিক্ষিত বা জ্ঞাত নন,যা স্বচ্ছতা ও তাদের জনগোষ্ঠিকে সময়োচিত সেবা প্রদান নিশ্চিতকরণে গুরুত্বপূর্ণ। মন্ত্রীপরিষদের অংশীদারিত্বে, প্লাটফরম ফর ডায়ালগ, এইজ্ঞানের শূন্যতা পূরণে কাজ করছে এবং২১টি প্রকল্প জেলা থেকে নির্বাচিত ইউপি সদস্যদের সামাজিক জবাবদিহি উপকরণ বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান শুরু করেছে।

অন্তভর্ক্তিমূলক পন্থায় সিদ্ধান্ত গ্রহণে এবং অংশগ্রহণমূলক পরিকল্পনা প্রণয়নে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল, তথ্য অধিকার আইন,২০০৯, নাগরিক সনদ, অভিযোগ প্রতিকারব্যবস্থাকে অন্তভুর্ক্ত করার প্রতি এই প্রশিক্ষণটি বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করে।  এই কার্যক্রমের সামগ্রিক উদ্দেশ্য হচ্ছে- ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বার,এবং সচিবদের জ্ঞান ও দক্ষতা তৈরী করা যাতে তারা সিদ্ধান্ত গ্রহণে নাগরিকদের অংশগ্রহণকে উৎসাহ দানের মাধ্যমে তাদের ইউনিয়নে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে পারে। ২০১৯ সালের মার্চ মাসে জাতীয় স্থানীয়সরকার ইনস্টিটিউট -এ মূল প্রশিক্ষক (মাস্টার ট্রেইনার) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, এবং স্থানীয় সরকারেরউপ-পরিচালকদেরকে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে এই প্রক্রিয়াটির শুরু হয়।

জেলা পর্যায়ে, ২০১৯ সালের মে ও সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষকগণ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত সদস্যদেরকে প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন।২০১৯ সালের জুলাই মাসে, ঢাকায় জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট -এ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং সচিবগণ একই প্রশিক্ষণ প্রহণ করবেন। এই প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের সাথে আলোচনা করে পিফরডি প্রকল্প ইতোমধ্যে স্থানীয় জনগোষ্ঠির প্রতি আরও দায়বদ্ধ  হতে স্থানীয় সরকারপ্রতিষ্ঠানসমূহকে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে সকল প্রয়োজনীয় তথ্যসম্বলিত একটি প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা ও প্রয়োজনীয় ম্যানুয়াল প্রণয়ণ করেছে।

ওয়ার্ড সভায় কমিউনিটি গঠন- সামাজিক কর্ম প্রকল্পের উপর স্পটলাইট

“প্রথমবারের মত আমরা আমাদের চেয়ারম্যান ও সদস্যদেরকে অনেক মানুষের সামনে দেখতে পাচ্ছি। এটি একটি মহৎ উদ্যোগ।” – আমিনা বেগম (৪০) ইসলামপুর, জামালপুর।

প্লাটফর্মস ফর ডায়ালগ প্রকল্প -এর মাল্টি-এ্যাক্টর পার্টনারশীপ সমূহ সফলতার সাথে সামাজিক কর্ম প্রকল্প সমূহ বাস্তবায়ন করেছে।  ম্যাপসমূহ ইউনিয়ন পরিষদে স্যাপদের জন্য ওয়ার্ড সভাকরছে।  ইউনিয়নেরবার্ষিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য ওয়ার্ড সভায়সমূহেস্থানীয় সরকার প্রতিনিধি  (চেয়ারম্যানও মেম্বার) এবং নাগরিকবৃন্দ উভয়ের অংশগ্রহণের সুযোগ রয়েছে। সভায় ওয়ার্ড উন্নয়ন অগ্রাধিকারসমূহ আলোচনা করা হয় এবং স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষকে দায়বদ্ধ করতে এই সভাসমূহ নাগরিকগণকে উৎসাহ প্রদান করে। ইউনিয়ন পরিষদ প্রতিনিধি এবং স্থানীয় জনগোষ্ঠিরউপস্থিতিতে কিছু ম্যাপ দল উন্মুক্ত বাজেট সভারও আয়োজন করেছে যেখানে তারা বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য বাজেট বরাদ্দ নিয়ে আলোচনা করেন।



2 views0 comments