• Platforms for Dialogue

নিউজলেটার সংস্করণ ১

Updated: Dec 24, 2020


পিফরডি প্রকল্পের শুভারম্ভ বাংলাদেশে সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও জবাবদিহিতা প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্তি এবং অংশগ্রহণকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল ’প্ল্যাটফর্ম ফর ডায়ালগ’ (পিফরডি) প্রকল্পের শুভ সূচনা করেছে। প্রকল্প-ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে একশত বিশ কোটি তিরানব্বই লক্ষ আটান্ন হাজার টাকা (১৩ মিলিয়ন ইউরো) যা অর্থায়ন করবে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ)।

২০১৮ সালের ১২ জুলাই ঢাকায় অবস্থিত হোটেল রেডিসন ব্লু-তে এই প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে। ২১টি মুখ্য জেলায় প্রকল্প এবং কর্মকর্তাদের প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমোদন প্রকাশে এটি ছিল একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। উচ্চ স্তরের এই অংশগ্রহণমূলক অনুষ্ঠান সংশ্লিষ্ট সরকারি বিভাগ, সুশীল সমাজ সংগঠন (সিএসও), গণমাধ্যম, উন্নয়ন সহযোগী এবং জনগণের মধ্যে প্রকল্প সম্পর্কে উৎসাহ জাগাতে একটি চমৎকার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীপরিষদ সচিব জনাব মোহাম্মদ শফিউল আলম এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত এবং প্রতিনিধিদলের প্রধান এমএস রেনজে তিরিঙ্ক, বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের রেক্টর ড: আসলাম আলম, বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন একাডেমীর রেক্টর জনাব মোশারফ হোসেন এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের পরিচালক এমএস বারবারা উইকহ্যামও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অংশগ্রহণের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত ছিল দূতাবাস ও হাই কমিশন, বিভাগীয় কমিশনার, উপ কমিশনার, উর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, উন্নয়ন সহযোগী, গণমাধ্যম এবং প্রকল্পের কর্মীবৃন্দসহ ব্যাপক পরিসরে সম্মানীত স্টেকহোল্ডারবৃন্দ।

পিফরডি কি? প্ল্যাটফর্ম ফর ডায়ালগ স্থানীয় এবং জাতীয় পর্যায়ে অন্তর্ভুক্তিমূলক শাসনকে উজ্জীবিত করতে সহায়তা করবে এবং সরকার, জনগণ এবং সুশীল সমাজের মধ্যে আরও বেশি সহযোগিতামূলক সম্পর্ক উন্নয়নে পারস্পরিক দায়িত্বের উপর গুরুত্ব দেবে। জেলা পর্যায়ে স্থানীয় সিএসও এবং স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধিগণ সক্ষমতা বৃদ্ধি প্রশিক্ষণ পাবেন। এই প্রশিক্ষণ সিএসওগুলোকে স্থানীয় সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনে সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় জড়িত হতে প্রয়োজনীয় ব্যাপক দক্ষতা ও জ্ঞান অর্জনে সহায়তা করবে। জাতীয় পর্যায়ে, জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল (ন্যাশনাল ইনটেগ্রিটি স্ট্র্যাটেজি), ৭ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা ও নীতিমালা, তথ্য অধিকার আইন ২০০৯, নাগরিক সনদ এবং অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থার কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থিত নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে পিফরডি সরকারি কর্মকর্তা এবং সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সক্ষমতা বৃদ্ধি প্রশিক্ষণ প্রদান করবে।

ময়মনসিংহ এবং সিলেটে অনুষ্ঠিত সিএসও পার্টনারশিপ কর্মশালা প্রথম দু’টি সিএসও পার্টনারশিপ কর্মশালা আয়োজনের মাধ্যমে স্থানীয় সুশীল সমাজ সংগঠনগুলোকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় জড়িত হতে তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে পিফরডি আরও একধাপ এগিয়ে গেল। কর্মশালাগুলোর একটি আয়োজন করা হয় ময়মনসিংহে ২০১৮ সালের আগস্ট ১২-১৩ তারিখে এবং অপরটি আয়োজিত হয় সিলেটে আগস্ট ২৯-৩০ তারিখে। এই কর্মশালাগুলোতে ময়মনসিংহ অঞ্চলের অধীনে নেত্রকোনা, জামালপুর এবং কিশোরগঞ্জ থেকে বিভিন্ন সিএসও এবং সিলেট অঞ্চলের অধীনে সুনামগঞ্জ, মৌলভিবাজার এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে সিএসওগুলো অংশগ্রহণ করে। এই সিএসওগুলো ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ধরনের সামাজিক উন্নয়ন কর্মকা- যেমন: যুব উন্নয়ন, কমিউনিটি সেবা এবং নারী বিষয়ক কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িত। কর্মশালাগুলোর উদ্দেশ্য ছিল পিফরডি সম্পর্কে জানতে সিএসওগুলোকে সহায়তা করা এবং পিফরডি প্রকল্পের অংশ হিসেবে সিএসওগুলোর ভূমিকা ও দায়িত্ব ব্যাখ্যা করা। প্রকল্পের অংশগ্রহণ ও অন্তর্ভুক্তি সংক্রান্ত লক্ষ্য অর্জনে পরস্পরকে জানা এবং আস্থা অর্জনে ২ দিনের এই কর্মকা-গুলো ছিল একটি চমৎকার সুযোগ। দিনব্যাপী দলীয় আলোচনা এবং বিভিন্ন কর্মকা-ের মাধ্যমে সিএসওগুলো তাদের নিজস্ব নেতৃত্বের দক্ষতা নিয়ে কাজ করতে বিপুল আগ্রহ প্রকাশ করে। একই সঙ্গে তারা বর্তমান জবাবদিহিতা প্রক্রিয়াকে উন্নত করার অভিন্ন লক্ষ্য অর্জনে স্থানীয় সরকারের সঙ্গে কাজ করার গুরুত্ব অনুভব করে। পরবর্তী সিএসও পার্টনারশিপ কর্মশালা ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে খুলনা এবং রংপুরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

খুলনায় সিএসও’র রূপরেখা ও সাংগঠনিক সক্ষমতা যাচাই করা হয় পিফরডি’র একটি মুখ্য কাজ হবে শাসন-কাঠামো, ব্যবস্থাপনা চর্চা, মানবসম্পদ, আর্থিক সম্পদ, টিকে থাকা এবং বাইরের সঙ্গে সম্পর্কের প্রশ্নে সাংগঠনিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। এর আগে সিএসও’র রূপরেখা তৈরি এবং বর্তমান সাংগঠনিক সক্ষমতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে পিফরডি’র গবেষণা দল একটি চেকলিস্ট চালু করে। পিফরডি’র আরএমইএল-প্রধানের নেতৃত্বে সিনিয়র মনিটরিং এ- ইভাল্যুয়েশন অফিসার, দু’জন রিসার্চ অফিসার এবং খুলনা অঞ্চলের রিজিওনাল কো-অর্ডিনেটর ২০১৮ সালের ২৬ জুলাই সিএসও যাচাই টুলগুলোর মাঠ পর্যায়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। পরবর্তীতে পিফরডি প্রকল্পের আওতাধীন ২১টি জেলায় সিএসও যাচাই এবং এর সক্ষমতার রূপরেখা নির্ধারণের কাজ শুরু করা হয়। প্রথম যাচাইয়ের কাজটি করা হয়েছে যশোরে অবস্থিত পল্লী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সঙ্গে (পিডব্লিউএ)। পিডব্লিউএ’র ব্যবস্থাপনা পরিষদ, কর্মী এবং উপকারভোগী, যশোরের অভয়নগর উপজেলার রাজবংশী সমাজ (একটি প্রান্তিক জেলে সম্প্রদায়) এই যাচাই কর্মকা-ে অংশগ্রহণ করে।

1 view0 comments